সুবর্ণ এক্সপ্রেস (Subarna Express Train Schedule) ট্রেনের সময়সূচী, টিকেট ও ভাড়ার তালিকা

সম্মানিত ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রুটের যাত্রী বৃন্দ সকলকে আচ্ছালামু আলাইকুম। আজকে আমি এই নিবন্ধে সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেন সম্পর্কে আলোচনা করতে যাচ্ছি। সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রুটে বিরতিহীনভাবে চলাচল করে। এটি বাংলাদেশ রেলওয়ে একটি বিরতিহীন আন্তঃনগর ট্রেন।সুতরাং আপনি যদি সুবর্ণা এক্সপ্রেস ট্রেন সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে চান তাহলে এই নিবন্ধটি আপনার জন্যই। এই নিবন্ধে আমরা সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেন সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করব।

সুবর্ণ এক্সপ্রেস সম্পর্কে 

সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনটি বাংলাদেশ রেলওয়ে একটি বিরতিহীন আন্তঃনগর ট্রেন। ট্রেনটির নাম্বার হচ্ছে 701/702।1998  সালের 14 এপ্রিল ট্রেনের উদ্বোধন করা হয় । এটি চালু হওয়ার পূর্ব বাংলাদেশের প্রথম আন্তঃনগর ট্রেন মহানগর এক্সপ্রেস নামে চলাচল করত।তবে সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেন চালু হওয়ার পর মহানগরের নাম্বার সুবর্ণ এক্সপ্রেস কে দিয়ে দেওয়া হয় এবং মহানগরকে 721/722 নম্বর দেওয়া হয়। তারপর থেকে সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেন নিয়মিত ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে চলাচল করছে।

সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী

সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঢাকা চট্টগ্রাম আন্তঃনগর  দ্রুতগামী বিলাসবহুল ট্রেন। যদিও বাংলাদেশ রেলওয়ে সময়সূচি নিয়মিত পরিবর্তনশীল, তারপরও  নিয়মিত সময় অনুযায়ী চলাচল করে। সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনটি সপ্তাহের ছয়দিন নিয়মিত চলাচল করে। ট্রেনটির সাপ্তাহিক সোমবার ছুটির দিন থাকায় বন্ধ থাকে।সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনটি চট্টগ্রামে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় সকাল সাতটায় এবং ঢাকায় পৌঁছে 12 টা 20 মিনিটে। অপরদিকে ঢাকায় চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় বিকাল 4 টা 30 মিনিটে এবং চট্টগ্রামের পৌঁছায় রাত 9 টা 50 মিনিটে।

সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন

বাংলাদেশ রেলওয়েতে ভ্রমণ করতে হলে সবচেয়ে বিরক্তিকর একটি বিষয় হল, ট্রেনগুলো যাত্রাপথের প্রত্যেকটি স্টেশনে বিরতি দেয়।সেই বিরক্তিকর অবস্থা থেকে মুক্ত করার জন্য বাংলাদেশ রেলওয়ে কিছু ট্রেন সংযুক্ত করেছে যেগুলো বিরতিহীনভাবে চলাচল করে।সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনটি বিরতিহীন হওয়ায়  যাত্রাপথে শুধুমাত্র একটি জায়গায় বিরতি দেয়।সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনটি যাত্রাপথে শুধুমাত্র ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাওয়ার সময় ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশনে বিরতি দেয় বিকাল 4:57 মিনিটে। অপরদিকে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে এসে আবার বিমানবন্দরে বিরতিতে সকাল 11: 45 মিনিটে।

সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিটের মূল্য

সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনটি একটি বিরতিহীন ট্রেন হলেও এটির মূল্য তালিকা ও অন্যান্য দিনের তুলনায় খুবই কম। তাই খুব অল্প দামে এই ট্রেনে ভ্রমণ করা যায়। সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়া পরিমাণ খুব কম হওয়ায় সকল শ্রেণীর মানুষ স্বল্পব্যয়ে ভ্রমণ  করতে পারেন। সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনটিতে দুই শ্রেণীতে যাতায়াত করা যায়। একটি হলো শোভন চেয়ার অন্যটি হলো স্নিগ্ধা। সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনের শোভন চেয়ার ভ্রমণ করতে আপনাকে মূল্য পরিশোধ করতে হবে ৩৫৫ (তিনশো পঞ্চান্ন)  টাকা। এবং স্নিগ্ধাতে ভ্রমণ করতে হলে আপনাকে মূল্য পরিশোধ করতে হবে মাত্র 673 টাকা।

আমাদের এই পোস্টটিতে সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, টিকেটের মূল্য, বিরতি স্টেশন সহ সকল বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে। আপনি যদি ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রুটের আরো ট্রেন সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটের অন্যান্য পোস্টগুলো অনুসরণ করুন।ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম রুটে নিয়মিতভাবে চলাচল করে বিরতিহীন সোনার বাংলা এক্সপ্রেস, মহানগর এক্সপ্রেস, চট্রলা এক্সপ্রেস, কর্ণফুলী এক্সপ্রেস, ও বনলতা এক্সপ্রেস।

আরও জানুনঃ

উপরের আলোচনা থেকে আমরা আশা করছি আপনাদের সকল প্রশ্নের উত্তর পেয়েছেন।আমরা এই ওয়েবসাইটে আরো অনেক ট্রেন সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি, আপনারা চাইলে অন্যান্য ট্রেন সম্পর্কেও জানতে পারেন। সুবর্ণ এক্সপ্রেস ট্রেনটি ভ্রমণ করে নিশ্চয় আপনি বেশ স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করবেন আপনার। যাত্রা শুভ হোক।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button