চুল লম্বা করার ঘরোয়া পদ্ধতিসমূহ 2023

প্রত্যেকটি মেয়ের রূপের সৌন্দর্যের রাজ্যে হল তাদের ঘন মেঘো চুল জন্য। অনেক মেয়ে আছে যাদের একটি সমস্যা দেখা যায় সেটি হচ্ছে তাদের চুল পড়ার প্রধান কারণ। তাই তো আজকে আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে সেই সব মেয়েদের জন্য আর্টিকেল লিখছি আপনারা কিভাবে আপনাদের পাতলা চুলকে আরো ঘন এবং আকর্ষণীয় করে তুলবেন।

সাধারণত চুলের ঠিকমতো পরিচর্যা করলে এবং যত্ন নিলে আপনার পাতলা চুলগুলো ঘন চুলে পরিণত হবে এক্ষেত্রে আমাদের দিকনির্দেশনা গুলো অবশ্যই মেনে চলবেন তাহলে আপনার পাতলা চুল আরও বেশি ঘন হয়ে উঠবে। মূলত পাতলা চুল এবং চুল ওঠার কারণ বেশিরভাগ সময় দেখা যায় চুলের অপুষ্টি ভুগে থাকে।

​চুলে শ্যাম্পু করার পদ্ধতি বদলে ফেলুন

অনেক মেয়েরা জানেন না কিভাবে শ্যাম্পু ব্যবহার করে থাকবেন। শ্যাম্পু ব্যবহারের ক্ষেত্রে কিছু দিকনির্দেশনা আছে এগুলো অবশ্যই সতর্কভাবে মেনে চলবেন এবং বাজারের ভেজালমুক্ত শ্যাম্পু গুলো ব্যবহার করে থাকবেন অনেক সময় দেখা যায় ভেজালযুক্ত শ্যাম্পুর কারণে চুল ওঠা এবং চুলের অনেক সমস্যা দেখা যায়।

  • জানেন কি, আপনি কত ঘন ঘন শ্যাম্পু করছেন বা কী ধরনের জলে শ্যাম্পু করছেন, তার উপর আপনার চুলের বৃদ্ধি নির্ভর করে?
  • যাঁরা প্রতিদিন শ্যাম্পু করেন তাঁদের চুল অতিরিক্ত শুষ্ক হয়ে যায়। শুষ্কতার কারণে এ ধরনের চুল ভঙ্গুর হয়ে যায়, ফলে ফাটে ঝরেও বেশি।
  • কাজেই চুল কখনওই ঘন বা লম্বা হতে পারে না।
  • চুলকে শুষ্কতার হাত থেকে রক্ষা করতে সপ্তাহে তিনবারের বেশি শ্যাম্পু করবেন না।

​নিয়মিত মাথার স্ক্যাল্প মাসাজ করুন

অনেক সময় মাথায় রক্ত চলাচল এবং চুলের সঠিক রক্ত চলাচলের কোষের ক্ষেত্রে প্রতিদিন আপনাকে অবশ্যই চুলের মেসেজ করতে হবে কারণ এক্ষেত্রে চুলের পুষ্টি কোষগুলো বৃদ্ধির জন্য আপনাকে অবশ্যই ফলি কালে পুষ্টি পৌঁছায় দিবে। এবং মাথায় রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করবে।

  • স্ক্যাল্প মাসাজ করলে যেমন আরামদায়ক, তেমনি চুলের স্বাস্থ্যের পক্ষেও উপকারী।
  • কাজের ফাঁকে মাঝেমধ্যে নিজেই সেরে নিতে পারেন। চুলের গোড়ায় আঙুল চালালে
  • মাথায় রক্তসঞ্চালন বাড়বে সহজেই। চুলের ফলিকলে পুষ্টিও পৌঁছে যাবে।
  • এর জন্য বেশি কিছু করতে হবে না, একদিন অন্তর ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল দিয়ে ভালো করে মাসাজ করে নিন।
  • শুধু শুকনো মাথাতেই নয়, স্নানের সময় ভেজা চুলেও পিছন থেকে সামনে ভালো করে মাসাজ করুন।

হট অয়েল ট্রিটমেন্ট

হট অল ট্রিটমেন্ট বলতে বুঝায় মাসে অন্তত তো আপনাকে অবশ্যই হট ওয়েল মেসেজ চুলের গোড়ায় পুষ্টির ক্ষেত্রে দুইবার লাগাতে হবে হালকাভাবে কুসুম কুসুম জলে চুলের ভিতর শ্যাম্পু করে এবং মেসেজ করে নিন।

  • চুলের গোড়ায় গোড়ায় তেলের পুষ্টি পৌঁছে দিতে মাসে অন্ত ২ বার হট অয়েল মাসাজ করতে পারেন।
  • এর জন্য নারকেল তেল হালকা গরম করে নিয়ে চুলের গোড়ায় গোড়ায় ভালো করে লাগিয়ে নিন।
  • এরপর একটা বড়ো তোয়ালে দিয়ে কুসুমগরম জলে ডুবিয়ে ভালো করে নিংড়ে চুলে জড়িয়ে দিন। যতক্ষণ না তোয়ালে ঠান্ডা হয়ে যায়।
  • এর পর শ্যাম্পু করে নিন।
  • চুলের গোড়ায় জমে থাকা তেলময়লা বের হয়ে যাবে
  • চুল সুন্দর করে তুলতে হট অয়েল ট্রিটমেন্ট দারুণ কার্যকরী।

​চুল ধোওয়ার সময় ঠান্ডা জল ব্যবহার করুন

গরম পানিতে চুল ধৌত করলে অনেক সময় দেখা যায় চুলের পুষ্টিগুণ ক্ষমতা হারিয়ে ফেলে এতে আপনার চুলের গোড়ায় সমস্যা দেখা দিতে পারে এজন্য অবশ্যই আপনাকে ঠান্ডা জলে চুল পরিষ্কার করতে হবে।

  • গরম জল চুলের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকর।
  • তাই চুল ধোয়ার সময় বালতি বা গামলায় ঠান্ডা জল নিয়ে তাতে কিছুক্ষণ চুল ভিজিয়ে রাখুন।
  • এতে চুলের আর্দ্রতা বজায় রেখে কিউটিকল মজবুত করতে সাহায্য করবে।
  • গরম জল চুল একদম নষ্ট করে দেয়। তাই ঠান্ডা জলই শ্রেয়।

শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার ব্যবহার করুন

শ্যাম্পু করার সময় স্বাভাবিক আর আদ্রতা এবং আদ্রতা ফিরিয়ে আনার জন্য কন্ডিশন ব্যবহার করতে পারেন এতে চুলের মসৃণ ও উজ্জ্বলতার ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। সে ক্ষেত্রে আপনি শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশন ব্যবহার করতে পারেন।

  • শ্যাম্পু করার পর চুলের স্বাভাবিক আর্দ্রতা শুষে নেয়।
  • তাই হারানো আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনতে সাহায্য করে কন্ডিশনার
  • চুল মসৃণ আর উজ্জ্বল করে তুলবে এই কন্ডিশনার।
  • তাই প্রতিবার শ্যাম্পুর পর কন্ডিশনার লাগাতে কখনওই ভুলবেন না।

আশা করি আমাদের উপরের আলোচনা থেকে আজকে আপনি আপনার ঘন চুল করার জন্য যে আমরা প্রক্রিয়াগুলো আপনাদের সামনে উপস্থাপনা করলাম এগুলো মেনে চললে অবশ্যই আপনার চুলের ঘনত্ব এবং পুষ্টির ক্ষমতা গুণ বেড়ে যাবে। এছাড়া আপনাদের চুল সংক্রান্ত কোন তথ্য বা জানার আগ্রহ থাকলে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করবেন ধন্যবাদ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button