কক্সবাজার বিমানের ভাড়া ,সময়সূচী ,অনলাইন টিকেট বুকিং ২০২৪

বাংলাদেশের মধ্যে সবচেয়ে সুন্দর এবং পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে বলা হয় কক্সবাজার। এখানে রয়েছে বাংলাদেশের এবং বিশ্বের মধ্যে দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত যা দৈর্ঘ্য ১৫৫ কিলোমিটার। সেই সমুদ্র সৈকতের জেলা হচ্ছে দক্ষিণ পূর্ব অঞ্চলের কক্সবাজার। মূলত কক্সবাজার পর্যটনকেন্দ্র হয় ঢাকা থেকে বহু মানুষ এখানে ঘুরতে যায় এবং দেশি-বিদেশি পর্যটকরা সমুদ্র সৈকত দেখতে যায়। সেক্ষেত্রে ঢাকা থেকে কক্সবাজারের ৩৯৫ কিলোমিটার। এই দীর্ঘ জার্নিতে অনেকেই বিমান ভ্রমণ পছন্দ করে থাকেন।

শুধু তাই নয় কক্সবাজারে আরো দৃষ্টিনন্দন একটি সেন্টমার্টিন দ্বীপ রয়েছে এখানেও মানুষ অনেক ঘুরতে যায়। কক্সবাজারের পাশেই আন্টি জেলা অবস্থিত সেটি হচ্ছে চট্টগ্রামে এরকম আরো অনেক পর্যটন কেন্দ্র আছে যেগুলোতে মানুষ ঘুরতে যায়। আজকের আলোচনা করতে যাচ্ছি আমরা ঢাকা থেকে কক্সবাজার রুটের বিমান সিডিউল এবং ভাড়া সম্পর্কে।

ঢাকা থেকে কক্সবাজার বিমানের সময়সূচী ২০২৪

আপনি যদি ঢাকা থেকে আকাশ পথে বিমান ভ্রমণ করতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই কক্সবাজার যাওয়ার যে এয়ারলাইন্সগুলো রয়েছে এয়ার লাইনসের টিকিট সংগ্রহ করতে হবে। ঢাকা থেকে বেশ কিছু এয়ার লাইন্স কক্সবাজার রুটে চলাচল করে থাকে আপনারা চাইলে এই এয়ারলাইন্সগুলোতে চলাচল করতে পারেন। এরমধ্যে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স, ইউ এস বাংলা, নভো ইয়ার এয়ারলাইন্স এই তিনটি এয়ারলাইন্স চলাচল করে থাকে।

ঢাকা থেকে কক্সবাজার বিমানের ভাড়া ২০২৪

ঢাকা থেকে কক্সবাজার মোট চারটি এয়ারলাইন্স সাপ্তাহিক কয়েকটি ফ্লাইট পরিচালনা করে থাকে তাই আপনারা যদি এই টিকিটের ভাড়া সম্পর্কে জানতে চান আমরা নিচে প্রত্যেকটি এয়ারলাইন্সের ভাড়া নিচের সংযুক্ত করছি আপনারা চাইলে দেখতে পারেন।

  • বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স=সপ্তাহে 5 টি
  • নভোএয়ার=সপ্তাহে 28 টি
  • রিজেন্ট এয়ারওয়েজ=সপ্তাহের 7টি
  • ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স=সপ্তাহে 14 টি

ভাড়া

  • নভোএয়ার

2500 টাকা (স্পেশাল প্রমো)

9200 টাকা ( ফ্লেক্সিবল)

  • রিজেন্ট এয়ারওয়েজ

3000 টাকা (সুপার সেভার )

8000 টাকা (বিজনেস ফ্লেক্সিবল)

  • ইউ এস বাংলা এয়ারলাইন্স

2500  টাকা (সর্বনিম্ন)

8700 টাকা (সর্বোচ্চ)

ঢাকা থেকে কক্সবাজার বিমানে যাওয়ার সুবিধা ২০২৪

ঢাকা থেকে কক্সবাজার বিমান যাওয়ার সুবিধা হল আপনি খুব অল্প সময়ের মধ্যে ঢাকা থেকে কক্সবাজার মাত্র ৪৫-৫০ মিনিটে পৌঁছে যাবেন। সেক্ষেত্রে সড়কপথে আপনাকে না হলেও সবথেকে আট ঘন্টা লাগতে পারে। বিমানের ভ্রমণটি আধুনিক এবং বিলাস ভুল ভ্রমণ। যা আপনি প্রকৃতিকে অনুভব করতে পারবেন।

পরিশেষে বলা যায় আমরা আমাদের আর্টিকেল থেকে চেষ্টা করি আপনাদের সম্পূর্ণ সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করার জন্য। প্রত্যেকটি জেলার বিমানের সিডিউল আমরা আমাদের ওয়েবসাইটে সংযুক্ত করব আশা করি আপনারা আমাদের সাথেই থাকবেন ধন্যবাদ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button