চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী ২০২৪, টিকেট ও ভাড়ার তালিকা, সাপ্তাহিক বন্ধ, অনলাইন টিকিট

চিত্রা এক্সপ্রেস বাংলাদেশ দক্ষিণ -পশ্চিম জেলা খুলনার ট্রেন। এটি ঢাকা থেকে খুলনায় চলাচল করে প্রতিনিয়ত। ট্রেনটি সাপ্তাহিক ছুটি একদিন সোমবার এই দিনে ট্রেনটি চলাচল বন্ধ থাকে। আজ আমরা চিত্রা এক্সপ্রেস সময়সূচী ছুটির দিন টিকিটের মূল্য এবং এক স্টেশন থেকে অন্য স্টেশন এর টিকিটের মূল্য আলোচনা করব। দয়া করে আমাদের পোস্টটি বিস্তারিত দেখুন।

চিত্রা এক্সপ্রেস বাংলাদেশের পশ্চিম জেলা খুলনা চলাচলকারি আন্তঃনগর এক্সপ্রেস ট্রেন। এটি প্রথম যাত্রী সেবা ০৭ অক্টোবর ২০০৭ সালে ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন থেকে খুলনা রেলওয়ে স্টেশনে সার্ভিস দেয়। ঢাকা থেকে খুলনার দূরত্ব ৪৪৯ কিলোমিটার বা (২৭৯) মাইল।

ট্রেনটিতে মোট বগি সংখ্যা বারোটি এবং আসন সংখ্যা ৮১১ টি। চিত্রা এক্সপ্রেস এ দুইটি বগি শীততাপ নিয়ন্ত্রিত বিলাসবহুল আরামদায়ক কামরা রয়েছে। যা একটি পরিবার একটি কেবিন নিয়ে সুন্দরভাবে ভ্রমণ করতে পারবেন এবং ট্রেনটিতে আরো দুইটি এসি বগি সুবিধা রয়েছে।

চিত্রা এক্সপ্রেস এর স্টেশন এর নাম এবং সময়সূচী

চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেনের নাম্বার যথাক্রমে (৭৬৩-৭৬৪) ট্রেনটি কমলাপুর রেলস্টেশন থেকে ৭৬৩ হয়ে খুলনায় পৌঁছায় আবার ৭৬৪ হয়ে খুলনা স্টেশন থেকে ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন এর উদ্দেশ্যে রওনা হয়। ঢাকা কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন সন্ধ্যা ,৭:০০ মিনিটে খুলনার উদ্দেশ্যে রওনা হয়‌ এবং ভোর ৩টা ৪০ মিনিটে খুলনায় রেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছায়।

আমরা আপনাদের সুবিধার্থে কথা চিন্তা করে চিত্রা এক্সপ্রেস এর স্টেশন গুলির নাম সময় এবং টিকিটের মূল্য নিচের ছকের মাধ্যমে প্রকাশ করছি দয়া করে ছক টি ভালভাবে দেখুনঃ

স্টেশনের নাম ছুটির দিন ছাড়ায় সময় পৌছানোর সময়
ঢাকা টু খুলনা সোমবার ১৯ঃ০০ ০৩ঃ৪০
খুলনা টু ঢাকা সোমবার ০৯ঃ০০ ১৭ঃ৫৫

চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেনটির সুবিধা

চিত্রা এক্সপ্রেস একটি আধুনিক বিলাসবহুল ট্রেন সকল সুযোগ সুবিধা ট্রেনটিতে আছে ট্রেনটিতে নামাজের জন্য নির্ধারিত জায়গা রয়েছে ট্রেনটিতে কোন অকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন রয়েছে যাতে করে ট্রেনের যাত্রা সময় কোন আঙ্কিত ঘটনা না হয়। ট্রেনটিতে জামানায় দুটি করে প্রটেকশন শাটার দেয়া হয়েছে। চিত্রা এক্সপ্রেস এর ট্রেনের খাবারে অত্যন্ত মানসম্মত ও স্বাস্থ্যসম্মত আপনি যদি ট্রেনটিতে ভ্রমণকালে কিছু খেতে চান তাহলে ট্রেনটিতে সব রকমের খাবার রয়েছে আপনি নির্বিঘ্নে খেতে পারেন।

চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা ২০২৪

আসন বিভাগ টিকেটের মূল্য (১৫% ভ্যাট)
শোভন চেয়ার ৫০৫ টাকা
প্রথম সিট ৬৭০ টাকা
প্রথম বার্থ ১০০৫  টাকা
স্নিগ্ধা ৮৪০ টাকা
এসি সিট ১০০৫ টাকা
এসি বার্থ ১৫০৫ টাকা

চিত্রা এক্সপ্রেস অনলাইন টিকেট সিস্টেম

আমরা জানি বাংলাদেশের ট্রেনে স্টেশনে যে টিকিট সংগ্রহ করা বিরক্তিকর এবং স্টেশনে অনেক দালাল চক্র রয়েছে। বিশেষ করে ঈদের সময় স্টেশনে অনেক ব্যস্ত থাকে তাই অনলাইন এর মাধ্যমে চিত্রা এক্সপ্রেস এর টিকিট আপনি বুকিং করতে পারেন আমরা নিচে আপনাদের সুবিধার জন্য লিংক দিয়ে দিব। তাছাড়াও বাংলাদেশ রেলওয়ে অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনি অনলাইনের মাধ্যমে টিকিট সংগ্রহ করতে পারেন।

আশা করি চিত্রা এক্সপ্রেস আপনি ভ্রমণ করে নিরাপদ ও স্বাচ্ছন্দ্যবো করবেন। চিত্রা এক্সপ্রেস রহ্মন সম্পর্কে বিস্তারিত আরো জানতে চাইলে নিচে আমাদের কমেন্ট বক্সে প্রশ্ন করুন এবং আমরা আপনার সেই উত্তর দেয়ার চেষ্টা করব। আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button