বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, টিকেটের মূূল্য ও ভাড়ার তালিকা

বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেন বাংলাদেশের প্রথম বিরতিহীন ট্রেন। এছাড়াও এই ট্রেনটি আধুনিক বিলাসবহুল একটি ট্রেন। বাংলাদেশ রেলওয়ে পরিচালিত ঢাকা রাজশাহী চাঁপাইনবাবগঞ্জ রুটে বিরতিহীন আন্তঃনগর ট্রেন হিসেবে যাত্রী সেবা দিয়ে আসছে। বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি নাম্বার (৭৯১-৭৯২) এই নাম্বারে ট্রেনটি বাংলাদেশ রেলওয়ে পরিচিত।

সাধারণত বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে প্রতিদিন যাত্রা করে থাকে। আপনারা জানলে হয়তো খুশি হবেন বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করার সময় শুধুমাত্র রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশন ঢাকা বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশন। সর্বশেষ ঢাকা কমলাপুর রেলস্টেশনে পৌঁছায়। সুতরাং বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি যাত্রা বিরতিহীনভাবে যাত্রীদের খুব অল্প সময়ের মধ্যে রাজধানী ঢাকাতে পৌঁছে দেয়।

দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা 2019 সালে 25 এপ্রিল বৃহস্পতিবার বেলা এগারো ঘটিকার সময় সবুজ পতাকা নেড়ে ও বাঁশি বাজিয়ে মাধ্যমে রাজশাহী-ঢাকা রুটে বিরতিহীন আন্তঃনগর এক্সপ্রেস বনলতা ট্রেনটি উদ্ভাবন করেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জীবনানন্দ দাশের একটি বিখ্যাত কবিতা থেকে বনলতা সেন নাম অনুসারে এই ট্রেনটির নাম রাখা হয় বনলতা এক্সপ্রেস।

বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটির সম্পূর্ণ আমদানিকৃত। ইন্দোনেশিয়া নোকিয়া কোম্পানি থেকে বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি আমদানি করা হয়। আপনাদের জানিয়ে রাখি বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি বাংলাদেশের প্রথম বায়োমেট্রিক ট্রেন। অর্থাৎ যাত্রীগণ যাত্রার পথে টয়লেট ব্যবহার করলে পরবর্তীতে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে পরিষ্কার করা হয়। যার এল এর চারপাশে পরিবেশ দূষণ রক্ষা করে।

বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি তে আপনি সকল প্রকার সুযোগ-সুবিধা পেয়ে যাবেন। যেহেতু এই ট্রেনটি বর্তমান প্রযুক্তি দিয়ে তৈরি সুতরাং ট্রেনটিতে। যাত্রীরা উন্নত মানের সেবা পেয়ে যাবে। অনেকেই বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি সময়সূচী, টিকিটের মূল্য, ও অনলাইনে কিভাবে টিকিট বুকিং করবেন। এছাড়াও বিভিন্ন তত্ত্ব সম্পর্কে জানতে চান। তাদের জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটির সকল তথ্য আমরা প্রধান করছি। আপনি চাইলে আমাদের পোস্টের মাধ্যমে বহত এক্সপ্রেস ট্রেনটির সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন। এজন্য আপনাকে প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত ধৈর্য সহকারে আমাদের পোস্টটি করতে হবে।

বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী

আপনারা হয়তো জানেন বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি সাধারণত চাঁপাইনবাবগঞ্জ রাজশাহী থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। বাপে এক্সপ্রেস ট্রেনটির ছুটির দিন সপ্তাহিক একদিন পরে সেটি শুক্রবার। অর্থাৎ শুক্রবার বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি যাত্রী সেবা দিয়ে থাকে না। আপনাদের সুবিধার্থে আমরা বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটির সময়সূচি নিচে টেবিলে প্রকাশ করছি। নিচের টেবিলে থেকে সময়সূচী জেনে নিন।

স্টেশনের নাম ছুটির দিন ছাড়ায় সময় পৌছানোর সময়
ঢাকা টু চাঁপাইনবাবগঞ্জ শুক্রবার ১৩ঃ৩০ ১৯ঃ৩০
চাঁপাইনবাবগঞ্জ টু ঢাকা শুক্রবার ০৬ঃ০০ ১১ঃ৩০

বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন সময়সূচী

বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি সাধারণত তিনটি স্টেশনে বিরতি নিয়ে থাকে। এই ট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে ছেড়ে আসে। এরপর রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনে বিরতি নিয়ে থাকে। তারপর সরাসরি ঢাকা বিমানবন্দর রেলওয়ে স্টেশনে বিরতি নিয়ে থাকে। পরবর্তী এই ট্রেনটি কমলাপুর রেলস্টেশনে পৌঁছায়।

বিরতি স্টেশন নাম ঢাকা থেকে (৭৯১) চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে (৭৩২)
বিমান বন্দর ১৩ঃ৫৭ ১০ঃ৫৭
রাজশাহী ১৮ঃ১৫ ০৬ঃ৫০

বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনের ভাড়ার তালিকা

অনেকেই জানতে চেয়েছেন বলতো এক্সপ্রেস ট্রেনটি সঠিক টিকিটের মূল্য। আপনাদের জানিয়ে রাখি বহত এক্সপ্রেস ট্রেনটি আধুনিক ও বিলাসবহুল ট্রেন। সুতরাং ট্রেনটিতে কয়েকটি শ্রেণীতে টিকিটের মূল্য করা হয়েছে। এই টিকিটের মূল্য জানতে চাইলে আমাদের নিচে টেবিল বক্সে চোখ রাখুন।

আসন বিভাগ টিকেটের মূল্য (১৫ভ্যাট)
শোভন চেয়ার ৫২৫ টাকা
স্নিগ্ধা ৭৮০ টাকা
এসি সিট ৮৭৫ টাকা

সুতরাং উপরের আলোচনা থেকে আমরা আপনাদের বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনটি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করতে পেরেছি। এছাড়াও এই ট্রেনটি সম্পর্কে আপনার অজানা আরো কিছু জানার থাকলে আপনি অবশ্যই আমাদের নিচে কমেন্ট বক্সে আপনার মতামত ব্যক্ত করুন। আমরা আপনার প্রশ্নের উত্তর খুব শীঘ্রই দিয়ে থাকবো।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button