দীর্ঘ সময় মিলন করার ওষুধ এর নাম ও কাজ সম্পর্কে জেনে নিন

সেক্সের ওষুধ কোনটা ভাল, সেক্সে ভাল ঔষধের নাম ও কাজ নিয়ে অনেকেরই প্রশ্ন থাকে, দীর্ঘক্ষন মিলনের ট্যাবলেট এর নাম জানতে চান? কি খেলে দীর্ঘ সময় মিলন করা যায়? টাইমিং বৃদ্ধির জন্য কোন ট্যাবলেট খেতে পারি? এসব প্রশ্নের জবাব দিতে আজকের লেখা। সেক্সের সময় বৃদ্ধির জন্য কোন ট্যাবলেট খাবেন জেনে নিন।

বিশেষ প্রয়োজনে যদি লিঙ্গোত্থানে দেরী হয়, বা অকালে বীর্যপাত হয়, এরজন্য প্রায় পুরষই সেক্সের ট্যাবলেট সেবন করেন, কিন্তু অনেক পুরুষই জানেননা, কোন সেক্স ট্যাবলেট কি কাজ করে। ফার্ম্মেসী ওয়ালা একটা হাতে ধরিয়ে দিলে তিনি সেটা নিয়ে সেবন করেন, আর সমস্যা অনুযায়ী কাজ না হলে, দোষারুপ করেন। আজকে জানিয়ে দেয়ার চেস্টা করবো, সেক্সে কোন ঔষধ কিভাবে কাজ করে।

ওয়ান টাইম সেক্স ট্যাবলেট এর নাম কি

ওয়ান টাইম সেক্স ট্যাবলেট এর নাম সিলড্রেনাফিল সাইট্রেড ২৫,৫০ ও ১০০ মিগ্রা টেবলেট পুরুষের লিঙ্গোত্থান জনিত সমস্যা ও দীর্ঘসময় সহবাসের জন্য সেবন করা হয়। কয়েকটি ঔষধ ও প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের সাথে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছি।
সিলাগ্রা ১০০ মিগ্রা, প্রস্তুতকারী ইনসেপ্টা ফার্মা।

একমিগ্রা ২৫,৫০,১০০ মিগ্রা হলো একমি ল্যাব এর, একটিবা ৫০ ও ১০০ মিগ্রা হলো- পেসিফিক ফার্মা, তেমনি এডেগ্রা ৫০ ও ১০০ মিগ্রা এসিআই এর, একগ্রা হলো- এসকায়েফ এর তৈরী, চার্ম ৫০ ও ১০০ মিগ্রা ড্রাগ ইন্টারন্যাশনাল, ডেনাফিল – নিপ্রো জেএমআই, এনেগ্রা বেক্সিমকোর, এনজফিল হলো- নাভানা ফার্মার, ইরিক্টা তৈরী করেছে রেনেটা কোম্পানি, ফুলফিল পাবেন ওরিওন এর, ইমেনসি টেবলেটটি বায়োফার্মা বাজারজাত করেছে,

কে এক্স ৫০ ও ১০০ মিগ্রা টেবলেট বাজারে পাবেন কেমিকো ফার্মার, মেডিগ্রা হলো- মেডআরএক্স কোম্পানির, নায়াগ্রা কমদামে পাবেন ডেল্টার, নোভাগ্রা নামেও আছে আরেকটি নোভেল্টা বেস্টওয়ের। পেনাগ্রা কনকর্ড এর, পিক ট্যাবলেট জেনারেল ফার্মার, ভায়াগ্রা বাজারজাত করেছে এস্ট্রা বায়ো ফার্মা, এছাড়াও আরও অনেক কোম্পানির সিলড্রেনাফিল সাইট্রেড টেবলেট আছে।

কোন ঔষধ খেলে দীর্ঘ সময় মিলন করা যায়

টাডালাফিল ৫,১০ও২০ মিগ্রা টেবলেট সাধারণত পুরুষদের লিঙ্গোত্থানজনিত সমস্যার জন্য দেয়া হয়। যাদের লিঙ্গ একেবারেই শক্ত হয়না, তাদের জন্য এই ট্যাবলেটটি রাতে ১ টা খেতে দেয়া হয়। কয়েকটি টাডালাফিল এর নাম ও কোম্পানির নামসহ লিখে দিলাম।

এডাফিল ১০ ও ২০ মিগ্রা টেবলেট বাজারাজাতকারী কোম্পানির নাম বেক্সিমকো তেমনিভাবে সেলেস্টা হলো জেনারেল এর, সিয়াফিল নাভানার সিয়ালিক্স নিপ্রো জেএমআই এর, সিয়াটন এসিআই, ডাইস্টাল এপেক্স এর, ইডিস্টা হলো ইউনিমেড ও ইউনিহেল্থ এর। কমদামে পাবেন ফিল নামক টেবলেট যা ডেল্টার তৈরী। এগুলো সব ৫, ১০ ও ২০ মিগ্রার হয়।

তাছড়া, টাডা, মেগাফিল,পেনফিল, প্রলংগা, টিফিল, টাডাফিল, টাফিল ইত্যাদি নামেও ফার্ম্মেসীতে পাওয়া যায়। তবে এগুলো দীর্ঘদিন খাওয়া উচিত নয়। ডাক্তারের পরামর্শ ব্যাতিত খেলে অসুবিধা হতে পারে।

সেক্সের ওষুধ কোনটা ভালো জানেন?

সেক্সের ওষুধ কোনটা ভালো তা নির্ভর করে ঔষধের উপাদানে কি দেয়া আছে। যেমন কেমিক্যাল নির্ভর ঔষধ সবই একই রকম। কারো ক্ষেত্রে বেশী কাজ করে, আবার একই ঔষধ অন্যের বেলায় মোটেই কাজ করেনা। এজন্য আমরা পরামর্শ দেই ভাল কোন কবিরাজের কাছ থেকে হাতে তৈরি পথ্য বা কবিরাজি ঔষধ খাওয়ার জন্য। যদি এগুলো অর্গানিক হয়, তাহলে একটু ধীরে ধীরে কাজ করলেও, এর স্থায়ীত্ব বেশীদিন থাকে। এবং কোন প্রকার সাইড এফেক্ট হয়না। যেমন- বৃক্ষমুল ৯ টি মুল্যবান ভেষজ উপাদান দিয়ে তৈরি করা হয়। ৩-৪ মাস খেলে দারুন ফল পাওয়া যায়।

সেক্সে বৃদ্ধির ঔষধের নাম

সেক্স বৃদ্ধির ঔষধের নাম এক কথায় বৃক্ষমুল ট্যালেট বা ক্যাপসুল আকারে অথবা পাউডারও খেতে পারেন। আমরা ক্যাপসুল আকারে তৈরি করি, তবে এটা কোন ফার্মেসীতে বিক্রি করার বিধান নাই, অর্থাৎ হেকিম বা কবিরাজগন শুধু মাত্র তাদের তদারকিতে সরাসরী রোগীর চিকিৎসার জন্য তৈরি ও বিক্রি করতে পারবে। কোন পাইকারী বিক্রি করা যাবেনা। তাই কোন ফার্ম্মেসীতে খোজাখুজি করলেও পাবেননা। যেকোন হেকিম বা কবিরাজের কাছ থেকে নিতে হবে।

দীর্ঘ সময় বীর্য ধরে রাখার ঔষধ

দীর্ঘ সময় বীর্য ধরে রাখার ঔষধ এর আরেক নাম ভায়াগ্রা। তবে ভায়াগ্রার নাম এখন বিভিন্নভাবে হয়ে থাকে। যেমন- আল শান, সিনেগ্রা, নাইচ, ইত্যাদি।

আপনি যেকোন একটি নিয়মানুযায়ী খেয়ে দেখে নিবেন, আপনার চাহিদামতো কাজ হচ্ছে কিনা। না হলে অবশ্যই পরিবর্তন করে নিতে হবে। এর জন্য আপনার চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। আপনি যে চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ঔষধ খাওয়া শুরু করেছিলেন, সেই চিকিৎসককে জানাবেন।

সেক্সের ট্যাবলেট ভিগোরা

সেক্সের ট্যাবলেট ভিগোরা, এটাও অকাল বীর্যপাত রোধ করার জন্য দেয়া হয়। আয়ুর্বেদিক এই ঔষধটি হারবাল ষ্টোর ডটকম এ পাওয়া যায় একেবারে পাইকারীতে। খাওয়ার নিয়ম – সহবাসের ১-১.৫ ঘন্টা আগে অথবা রাতের খাবার খাওয়ার আগে ১ টি ক্যাপসুল খেয়ে নিবেন।

ভিগোরা খাওয়ার পর সামান্য মাথা ব্যথা হতে পারে, এটা ঔষধের একটি প্রতিক্রিয়া। এ জাতীয় ঔষধ খেলে সামান্য মাথা ব্যথা বা ঝিমঝিম হতেই পারে।

সেক্স বাড়ানোর ঔষধ কস্তুরী

সেক্স বাড়ানোর ঔষধ কস্তুরী দূর্বল পুরুষের অকাল বীর্যপাত রোধ করার জন্য দেয়া হয়। যাদের বীর্য পাতলা তারাও এটি খেতে পারেন। কস্তুরী নামে অনেক কোম্পানির ঔষধ থাকলেও harbalstore এ ১ বক্স কস্তুরী পাবেন পাইকারিতে। তাই কস্তুরী ক্যাপসুল এর জন্য যোগাযোগ করতে পারেন।

বাংলা সেক্স ট্যাবলেট নিশাত এর কাজ কি

নিশাত টেবলেট ইউনানি ফর্মুলার একটি টাইমিং বৃদ্ধির ঔষধ। এর মধ্যে হলি নিশাত যখন হলি ড্রাগস যখন তৈরি করতো, তখন খুব জনপ্রিয় ছিল। এখন জানিনা এর কোয়ালিটি কেমন। হামদর্দ এর নিশাত লিবিডেক্স ট্যাবলেট, নেপলস এর ক্যাপ ভি এগুলোও মোটামুটি ভাল মানের নিশাত জাতীয় ঔষধ। তবে এগুলো সবই যতদিন খাবেন ততদিনই ফল পাবেন। অতিরিক্ত মাত্রায় সেবন করলে কিছুটা সাইড এফেক্ট আছে। তবে নির্ধারিত মাত্রায় সেবনে তেমন কোন সাইড এফেক্ট হওয়ার প্রমান পাওয়া যায়নি।

দীর্ঘ সময় মিলন করার ইউনানি ট্যাবলেট এর নাম

মুকাব্বি খাছ পুরুষের জন্য আদর্শ একটি ইউনানি ফর্মুলার সেক্সুয়াল ঔষধ। তবে অনেক কোম্পানি ইউনানি ফর্মুলার কথা লিখে বিভিন্ন এ্যালোপ্যাথিক মিক্স করে দেয়ায়, সেটা আর নিরাপদ থাকেনা। যেমন মুসলিম ফার্মাসিউটিক্যালসের একটি মুকাব্বি খাছ খেয়ে একজন রোগী এসে বলল, প্রায় ৩০ মিনিট পর্যন্ত সহবাস করার পরও তার বীর্যপাত হয়নি, কিন্তু মাথায় খুব যন্ত্রনাবোধ করেছিল। এতে বুঝা গেলো, মাত্রার চেয়ে বেশী পরিমান কেমিক্যাল মেশানো হতে পারে। এগুলো খুব সাবধানে ব্যবহার করা উচিৎ।

তবে এপসম ল্যাবরেটরীর মুনেক্স ক্যাপসুল এখানে খুব কার্যকরী বলেই মনে হয়। এই ঔষধে তেমন মাথা ব্যথা হওয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়নি। মুনেক্স ক্যাপসুল প্রতি বক্সে ২০টি করে থাকে। যেদিন প্রয়োজন সেদিন মিলনের ১ ঘন্টা আগে ১টি ক্যাপসুল খেয়ে নিলে ২০-২৫ মিনিট মিলন করা যায়।

সেক্সের ঔষধ সঞ্জীবনী রসায়ন

সেক্সের ঔষধ সঞ্জীবনী রসায়ন আয়ুর্বেদ চিকিৎসার আরেকটি সেইফ ঔষধ। পুরুষের টেষ্টোস্টেরন হরমোনের উন্নতিসহ, দ্রুতবীর্যপাতে দারুন উপকার করে থাকে। এপি, শক্তি ঔষধালয়, মোজাহের ঔষধালয়, সাধনা ঔষধালয়সহ বেশ কিছু আয়ুর্বেদিক ফার্মাসিউটিক্যালসের সঞ্জিবনী রসায়ন বাজারে প্রচলিত আছে। তবে এগুলো সাধারণ ফার্ম্মেসীতে পাওয়া যায়না। তাদের নির্দিষ্ট বিক্রয়কেন্দ্র থেকে কিনে আনতে হয়।

সেক্সের ওষুধ কেন খায়

টাইমিং বৃদ্ধির ট্যাবলেট কেন খায়, অনেকের প্রশ্ন থাকতেই পারে। শুনুন, আমি একসময় সেম্পল প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করতাম, তখন একজনকে বলেছিলাম স্যার সব সেম্পলই কমবেশি পাওয়া যায়, তবে এখন পর্যন্ত কারো কাছে যৌন উদ্দিপক কোন সেম্পল পাইনি কেন? কোম্পানি কি এগুলো দেয়না? তখন উনি কথাটা এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলেন। আসলে এগুলো অনেকে নিজেরাই খেয়ে থাকে। আশাকরি বুঝাতে পেরেছি, যে সবাই কমবেশী এগুলো খেয়ে থাকে। কারন টাইমিং বৃদ্ধির ট্যাবলেট মাঝে মাঝে খেতে হয়। সবসময় শারীরিক শক্তি একরকম থাকেনা। আপনি আমাদের সেলস সেন্টার বাটনে ক্লিক করলে টোটাল কম্বো প্যাক সাশ্রয়ী মুল্যে নিতে পারবেন। বাংলাদেশের যেকোনো এলাকায় পৌছাতে পারবো। এগুলো শতভাগ নিরাপদ থাকবে ইনশাআল্লাহ।

সেক্সের ঔষধ কোনটা ভালো

এসবি লাবরেটরীজ এর বাজারজাতকৃত দীর্ঘ সময় সহবাসের ঔষধের নাম পাওয়ার ৩০ ক্যাপসুল। তবে, বিভিন্ন অসাধু কোম্পানি এই ঔষধটি নকল করে বাজারে ছাড়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসবি ল্যাব এর উৎপাদিত ঔষধটি অনেক ভাল একটি ঔষধ। তবে চিনে নেয়াটাই মুশকিল। এটাও হলি নিশাতের মতো মাথা ব্যথা হয়না। কিন্তু দাম হলি নিশাতের চেয়ে অনেক বেশী। হলি নিশাত ২০ টাকা প্রতি পিস হলেও পাওয়ার ৩০ ক্যাপসুল ৩০-৩৫ টাকা প্রতি পিস। অনেকে এগুলোর দাম ৫০ টাকাও রাখে, যদি কেনার সময় বক্সের গায়ের রেট দেখে কিনেন, তাহলে প্রতারনায় পড়া থেকে বেঁচে যাবেন।

সেক্সের নিরাপদ ঔষধ কি

ইউনানি ও আয়ুর্বেদিক ফর্মুলার ঔষধ নিরাপদ বলেই বিবেচিত। তার মধ্যে হাব্বে নিশাত, আম্বর মুমিয়ায়ী, হাব্বে মুমসিক, ইত্যাদি জেনেরিক এর টেবলেট ও ক্যাপসুলগুলি নিরাপদ। তবে অনেকেই বলে থাকে এগুলো স্থায়ী চিকিৎসার জন্য নাকি সেবন করা হয়। এটা আমি মানতে নারাজ।

যৌন চিকিৎসকগন এ বিষয়ে একমত হয়েছেন যে, যৌন দূর্বলতা কোন রোগ নয়। এটা একটা ঘাটতিজনিত সমস্যা। তাই ঘাটতি দূর করতে পারলেই এই দূর্বলতা দূর হবে। এর জন্য প্রয়োজনমত জিংক, প্রোটিন,ও ক্যালসিয়াম দৈনন্দিন খাবারে যোগান থাকতে হবে।

আমাকে বেশ কয়েকজন রোগী সমস্যার কথা জানাতে গিয়ে বৃক্ষমুল নামক একটি হারবাল প্রোডাক্টের কথা জানিয়েছেন, প্রায় কয়েকজনের কাছ থেকে শুনেছি এই পাউডার খাওয়ার পর বেশ কিছুদিন পর্যন্ত তাদের কোন সমস্যা হয়নি। কেউ কেউ ২-৩ বছর ধরে কোন ঔষধ খেতে হয়নি। কিন্তু এখন আবার একটু একটু সমস্যা দেখা দিচ্ছে। আমি তাদেরকে প্রতিউত্তরে বলেছি, এটাই স্বাভাবিক!

হারবাল ষ্টোরের পথ্য দিয়ে চিকিৎসা

হারবাল ষ্টোরের পথ্য দিয়ে যে চিকিৎসা করা হয়, তা দেশব্যাপি জনপ্রিয়। কারন এখানে ১৩ টি প্রাকৃতিক ভেষজ উপাদান ও ২ টি হোমিও এবং নিরাপদ হলি নিশাত দিয়ে একটি কম্বাইন্ড ট্রিটমেন্ট করা হয়। এতে শতকরা ৯০-৯৫ জনই যৌবন ফিরে পাওয়ার সুনাম আছে। অনলাইনে অর্ডার করতে হয়৷ বলে অনেকে চিন্তায় পরতে পারেন। কিন্তু হারবাল ষ্টোর খুবই বিশ্বস্থ ও নিরাপদ।

যদিও আমার কথায় হয়ত কর্ণপাত না ও হতে পারে। তাই আমি সচরাচর সবাইকে পরামর্শ দেই, হামদর্দ এর শোরুম থেকে ফ্রোডেক্স নামক টেবলেট রাতে ১-২ টি করে ২ মাস, সাথে এনডিউরেক্স রাতে ১ টি এভাবে ২ মাস খেয়ে যান। যদিও একটু ব্যায়বহুল তবুও বেশ কিছুদিন কোন ক্ষতিকারক ঔষধ খেতে হবেনা।

তাও যদি সম্ভব না হয়, তাহলে প্রতিদিন ১ গ্লাস দুধ ও তার সাথে ১ টি ডিম খাবেন, প্রতিদিন সামান্য বাদাম ও মৌসুমি ফল খাবেন। এনার্জি জনিত ঘাটতি দূর হবে ইনশাআল্লাহ। আর যদি সম্ভব হয়, আমাদের কাছ থেকে কিছু ঔষধ নিয়ে খেয়ে দেখবেন, ইনশাআল্লাহ আশাকরি ৮০-৯০% ইম্প্রুভ হবেন। সমগ্র বাংলাদেশ জুড়ে কুরিয়ার করা হয়।

সেক্স ট্যবলেট বা টাইম বৃদ্ধির ঔষধ যেভাবেই বলেননা কেন, বাজারে যা পাওয়া যায় এগুলো ক্ষনস্থায়ী কাজ করবে এবং এর সাইড এফেক্টও বেশী। তাই আমার সাজেশন থাকবে ভেষজ ঔষধ দ্বারা ট্রিটমেন্ট করে নিন। আর তা হলো- বিভিন্ন গাছগাছালির মুল, কন্দ, বীজ থেকে আহরীত ঔষধি উপাদান। ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন, প্রকৃতিকে সাথে নিয়ে দীর্ঘদিন ভালো থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button