করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী, টিকেট ও ভাড়ার তালিকা

করতোয়া এক্সপ্রেস বাংলাদেশ রেলওয়ে সান্তাহার থেকে বুড়িমারী আন্তঃনগর একটি ট্রেন। এই ট্রেনটি তৎকালীন রাষ্ট্রপতি হোসেন মোহাম্মদ এরশাদ সর্বপ্রথম আন্তঃনগর ট্রেন হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে থাকেন। রাষ্ট্রপতি এই আন্তঃনগর ট্রেনটির নাম কত এক্সপ্রেস দিয়েছে। করতো এক্সপ্রেস ট্রেনটি 17 ই মার্চ 1986 খ্রিস্টাব্দে প্রথম যাত্রা শুরু করে।

বর্তমানে করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিম জোনের আওতায় ট্রেন ব্যবস্থা নিযুক্ত আছে। সাধারণত ট্রেনটি উত্তরবঙ্গের পাঁচটি জেলায় নিরবিচ্ছিন্ন ভাবে যাত্রী সেবা দিয়ে আসছে। এই জেলাগুলো হলো নওগাঁ,বগুড়া ,সান্তাহার, লালমনিহাট, রংপুর,এবং সর্বশেষ জংশন টু বুড়িমারী রেলওয়ে স্টেশনে শেষ হয়ে যায়। এই রুটগুলোতে যাত্রীরা করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি ভ্রমণ করতে পারেন।

সান্তাহার জংশন থেকে গাইবান্ধা লালমনিরহাট-বুড়িমারী প্রায় 270 কিলোমিটার মিটারগেজ রেলওয়ে রুট। এই রুটগুলোতে যারা ট্রেন ভ্রমণ করতে চান তাদের জন্য করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনটিতে ভ্রমণ করতে পারবেন। করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি ঘণ্টায় 80 কিলোমিটার বেগে চলতে সক্ষম।
এছাড়াও করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি প্রায় 34 বছর ধরে বাংলাদেশ রেলওয়ে যাত্রী সেবা দিয়ে আসছে।

আপনি যদি করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনটির সময়সূচি, টিকিটের মূল্য ,ও ট্রেনটি যাত্রার পথে যেসব স্টেশনে বিরতি নিয়ে থাকে। সেই সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের নিবন্ধনটি সম্পূর্ণ প্রথম থেকে শেষ পর্যন্ত দেখুন। আশাকরি আমাদের এই পোষ্টের মাধ্যমে অর্থ এক্সপ্রেস ট্রেনটি বিস্তারিত তথ্য জানতে পারবেন।

করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনের সময়সূচী

আপনারা জানলে খুশি হবেন করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি সপ্তাহে সাত দিনে যাত্রীদের সেবা দিয়ে থাকে। তাই কত এক্সপ্রেস ট্রেনটি সাপ্তাহিক ছুটি থাকে না। সাধারণত কত এক্সপ্রেস ট্রেনটি বগুড়া সান্তাহার রেলওয়ে স্টেশন থেকে 9:15 ছেড়ে লালমনিরহাট-বুড়িমারী জংশন স্টেশনে 15:35 মিনিটে পৌঁছায়। আপনাদের সুবিধার্থে আমরা আমাদের ওয়েবসাইটের নিচে গর্ত এক্সপ্রেস ট্রেনটির সময়সূচি ছকের মাধ্যমে প্রকাশ করছি।

স্টেশনের নাম ছুটির দিন ছাড়ায় সময় পৌছানোর সময়
সান্তাহার টু বুড়িমারী নাই ০৯ঃ১৫ ১৫ঃ৩৫
বুড়িমারী টু সান্তাহার নাই ১৬ঃ০০ ২২ঃ২০

করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনের বিরতি স্টেশন  সময়সূচী

করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি সাধারণত নওগাঁ সান্তাহার থেকে লালমনিরহাট-বুড়িমারী স্টেশনে এসে পৌঁছায়। এক্ষেত্রে যাত্রার পথে অনেকগুলো স্টেশনে ট্রেনটি বিরতি নিয়ে থাকে। তাই আপনারা অনেকেই জানতে চেয়েছেন করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি যেসব স্টেশনে বিরতি নিয়ে থাকে। সে সকল স্টেশনের সময়সূচী ও কতক্ষণ বিরতি নিয়ে থাকে। সে সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। তাই আমরা ছকের মাধ্যমে করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনটির সকল স্টেশনের বিরতি সময়সূচি নিচে প্রকাশ করছি।

বিরতি স্টেশন নাম সান্তাহার থেকে (৭১৩) বুড়িমারী থেকে (৭১৪)
বগুড়া ০৯:৫৫ ২১ঃ২১
সোনাতলা ১০ঃ৩০ ২০ঃ৪৫
মহিমাগঞ্জ ১০ঃ৪০ ২০ঃ৩৫
বোনারপাড়া ১১ঃ০৫ ২০ঃ২৩
গাইবান্ধা ১১ঃ৩০ ১৯ঃ৫৭
বামনডাঙ্গা ১২ঃ২২ ১৯ঃ২৫
পীরগাছা ১২ঃ৪০ ১৯ঃ০৬
কাউনিয়া ১২ঃ৫৭ ১৮ঃ৪৭
লালমনিরহাট ১৩ঃ২৫ ১৮ঃ০০
আদিতমারী ১৩ঃ৪৮ ১৭ঃ৩৮
কাকিনা ১৪ঃ০৭ ১৭ঃ২০
তুষভান্ডার ১৪ঃ১৫ ১৭ঃ১৩
হাতিবান্ধা ১৪ঃ৪২ ১৬ঃ৪৬
বারকাঁথা ১৪ঃ৫৬ ১৬ঃ৩৪
পাটগ্রাম ১৫ঃ১৮ ১৬ঃ১২

করতোয়া এক্সপ্রেস ট্রেনের টিকিটের মূল্য

আমরা সবাই জানি বাংলাদেশের যেসব রেলওয়ে বিভাগে যেসব ট্রেন চলাচল করে থাকে। বাংলাদেশ রেলওয়ে মন্ত্রণালয় থেকে। সকল ট্রেনের দূরত্ব অনুযায়ী ভাড়া নির্ধারিত করা হয়। বা ট্রেনের বিভিন্ন শ্রেণীবিভাগ অনুযায়ী ভাড়া নির্ধারিত করা হয়।

আসন বিভাগ টিকেটের মূল্য (১৫%ভ্যাট)
শোভন ১৪ টাকা
শোভন চেয়ার ১৭ টাকা

আশা করি আমাদের ওয়েবসাইটের উপরের তথ্যগুলো আপনারা জানতে পেরে অবশ্যই কত এক্সপ্রেস ট্রেনটি তথ্য জানতে পেরেছেন। যা আপনাদের এই ট্রেনটিতে ভ্রমণ করতে সাহায্য করবে। এছাড়াও আপনি যদি এই ট্রেনটি সম্পর্কে আরও কিছু জানতে চান বা জানার থাকে তাহলে আমাদের ওয়েবসাইটের নিচে একটি কমেন্ট বক্সে আছে অবশ্যই এখানে কমেন্ট করবেন ধন্যবাদ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button